আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

ভারতের কাছে হেরে সেমির স্বপ্নভঙ্গ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের

বছর দুয়েক আগে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালে চার বারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে হারিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ যুব দল। ভারতের মত ক্রিকেট পরাশক্তির বিপক্ষে জয় ছিনিয়ে আনাটা ছিলো এক ঐতিহাসিক মুহুর্ত। সেদিন সমস্ত ক্রিকেটপ্রেমীদের অবাক করে দিয়ে জয়ের মুকুট ছিনিয়ে এনে যুব বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলো বাংলাদেশ।

গত বিশ্বকাপের ফাইনালের পর শনিবার কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচ যথেষ্ট উত্তেজনাময় হওয়ার কথাই ছিলো। সকলের নজর ছিলো এই ম্যাচে। কে যাবেন সেরা চারে। কে হবেন অস্ট্রেলিয়ার যোগ্য প্রতিপক্ষ।

গত বিশ্বকাপজয়ী রকিবুল হাসান নেতৃত্ব দিচ্ছেন এবারের অনূর্ধ্ব-১৯ বাংলাদেশ দলকে। আজ কোয়ার্টার ফাইনালে হারের মাধ্যমে শিরোপা ধরে রাখার আশা শেষ হয় রকিবুলদের।

কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে খেলতে নেমে প্রথমেই ধুঁকতে থাকে জুনিয়র টাইগাররা। শুরুতেই দলীয় মাত্র ১২ রানেই সাজঘরে ফেরেন দুই ওপেনার মাহফিজুল ইসলাম ও ইফতেখার হোসেন। মাহফিজ ২ ও ইফতেখারকে ১ রানে আটকে দেন রবি কুমার।

বলা হয় শেষ ভালো যার সব ভালো তার। কিন্তু তারপরও কিছু কিছু ক্ষেত্রে শুরুটাও ভালো হওয়া চাই। সেই যে শুরুতে বাংলাদেশ হোচট খায়, সেই ধাক্কা সামলাতে পারেনি পুরো ম্যাচ জুড়ে।

পরে একে একে ব্যাট করতে এসে প্রান্তিক নাবিল ৭, আইচ মোল্লা ১৭, আরিফুল ইসলাম ৯, ফাহিম ০ ও অধিনায়ক রকিবুল হাসান ৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন।

কিন্তু কাউকে না কাউকে তো দায়িত্বশীল ব্যাটারের পরিচয় দেওয়া লাগতো। আর সে চেষ্টাই করেন মেহরাব। দলের হাল ধরার যথেষ্ট চেষ্টা করেছিলেন তিনি। দলীয় সর্বোচ্চ রান ৪৮ বল খেলে ৩০ রান করেন তিনি। এছাড়াও আশিকুর জামান করেন ১৬ এবং তানজিম হাসান ২  রান করে আউট হন। ২ রানে অপরাজিত থাকেন রিপন মন্ডল।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ভারতের বিধ্বংসী বোলিং তোপে বাংলাদেশের যুবরা মাত্র ১১১ রানেই অল-আউট হয়ে যায়।

জবাবে ১১২ রান তাড়া করতে নেমে ভারত খাতা খোলার আগেই তাদের প্রথম উইকেট হারায়। তবে
<span;>আংক্রিশ রঘুবংশীর করা ৪৪ রানের ইনিংস এবং তিন নাম্বারে ব্যাট করতে নামা শাইক রশিদের ২৬ রানের ইনিংস সে উইকেট হারানোর বেদনা ভুলিয়ে দেয় ভারতের।

তবে বোলাররা চেষ্টা করেছেন যথেষ্ট। কিন্তু ব্যাটারদের ভুলে ১১১ রান নিয়ে আর কতই বা লড়াই করা যায়। ১ উইকেটে ৭০ রান তোলা ভারতকে অবশ্য নাড়া দিয়েছিলেন বোলাররা। রিপন মন্ডলের বোলিং তোপে সেই হিসেব দাঁড়িয়েছিলো ৫ উইকেটে ৯৭ রানে। কিন্তু লক্ষ্য ছোট হওয়ায় শেষ রক্ষা হয়না বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের।

অ্যান্টিগায় ১১২ রানের সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১১৫ বল হাতে রেখেই জয়ী হয় ভারত। আর সেমির স্বপ্নভঙ্গের খাতায় নাম লেখায় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের হয়ে ৩১ রানে সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট নেন পেসার রিপন মন্ডল। ভারতের পক্ষে রবি কুমার ১৪ রান দিয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট তুলে নেন। ২৫ রান খরচায় ভিকি ওসওয়াল দ্বিতীয় সর্বোচ্চ দুটি উইকেট তুলে নেন।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement

আরো দেখুন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট