আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

বিরাটের ব্যাটে রোমাঞ্চ ছড়ানো মাচে জিতলো ভারত

বিরাটের ব্যাটে রোমাঞ্চ ছড়ানো মাচে জিতলো ভারত

বিরাটের ব্যাটে রোমাঞ্চ ছড়ানো মাচে জিতলো ভারত/ ছবিঃ অনলাইন

একেই বলে পয়সা উসুলের ম্যাচ! এই মনে হচ্ছে খেলা পাকিস্তানের পক্ষে, তো ঠিক পরের বলেই আবার পাল্লা ঝুলে যায় ভারতের দিকে। মেলবোর্নের গ্যালারিতে লক্ষ ছুঁইছুঁই দর্শকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলে শেষ পর্যন্ত নিয়ে গেছে পাক-ভারত মহারণ। সেইসঙ্গে পর্দার শতকোটি দর্শককের স্নায়ুচাপের সর্বোচ্চ রোমাঞ্চে ভাসিয়ে শেষ হাসি হেসেছে রোহিত শর্মার দল।

তবে সবকিছুকে ছাড়িয়ে গেছে বিরাট কোহলির অতিমানবীয় ইনিংস। যে ইনিংসকে গত বিশ্বকাপে বাবর আজমদের কাছে হারের বদলা হিসেবে দেখা যেতে পারে।

শেষ ৮ বলে ভারতের প্রয়োজন ২৮ রান। আপাত দৃষ্টিতে দেখলে মনে হয়, ম্যাচ পাকিস্তানের দিকে ঝুঁকে আছে। কিন্তু না; ব্যাটিংয়ে এখনও বিরাট কোহলি, আর বিরাট থাকা মানেই ‘পিকচার আভি বাকি হ্য মেরে দোস্ত’ (ছবির এখনো অনেক কিছু দেখার বাকি আছে)।

আরও পড়ুনঃ মেলর্বোনে মুখোমুখি ক্রিকেটের দুই পরাশক্তি ভারত-পাকিস্তান

১৯তম ওভারের শেষে দুই বলে যে দুটি ৬ বিরাট হাকিয়েছেন, তা ক্রিকেট প্রেমীরা অনেকদিন মনে রাখবেন। ওই দুই ছয়ে পাকিস্তানের হাতের মুঠোয় থাকা ম্যাচ ঝুঁকে যায় ভারতের দিকে। শেষ পর্যন্ত জয় তুলে নিয়েই মাঠ ছেড়েছেন কোহলি।

ভারতের শুরুটা অবশ্য ভালো হয়নি। ১৬০ রানের টার্গেটে নেমে স্কোরবোর্ডে মাত্র ৩৪ রান যোগ হতে ৪ উইকেট নেই। রোহিত, রাহুল, সুরিয়ারা যে ধ্বংসস্তূপ তৈরি করে দিয়েছিলেন, সেই স্তূপে দাঁড়িয়ে ৫৩ বলে ৮২ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন বিরাট। তাকে যে কেন ‘কিং কোহলি’ বলা হয়, আজ তারই আরেকটা প্রমাণ দেখলো ক্রিকেট বিশ্ব।

কোহলিকে সঠিক সঙ্গ দিয়েছেন হার্দিক পাণ্ডিয়া। দুজনে মিলে গড়েছেন ১০০ রানের জুটি। তবে শেষ ওভারের প্রথম বলে হার্দিক আউট হলে খেলা শেষ বল পর্যন্ত গড়ায়। শেষ ওভারে ম্যাচটা পেন্ডুলামের মতো দুলেছে, খেলোয়াড়দের ওপর যেমন তৈরি হয়েছে স্নায়ুচাপ, দর্শকেরাও হয়েছেন রোমাঞ্চের সাক্ষী। অনায়াসে এই ম্যাচকে টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের অন্যতম সেরা ম্যাচ বলা যেতে পারে।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement

আরো দেখুন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট