আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

ক্রিকেট

ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব, আইপিএলে টেল্ডুলকার-গম্ভীরের সতীর্থ কে

মুম্বাই ইন্ডিয়ানস, কলকাতা নাইট রাইডার্স ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মতো আইপিএলের বড় বড় ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে খেলেছেন তিনি। শচীন টেন্ডুলকার থেকে শুরু করে গৌতম গম্ভীর, অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, লাসিথ মালিঙ্গা, আন্দ্রে রাসেল, সনৎ জয়াসুরিয়াসহ আরও অনেকেরই সতীর্থ হয়ে একই ম্যাচে, একই মাঠে খেলেছেন বহুবার।

বলা হচ্ছিলো রাজাগোপাল সতীশকে নিয়ে। নামী দামী সতীর্থের ভীড়ে চাপা পড়ে ছিলেন তিনি, নিজের খেলোয়াড়ি জৌলুশ নিয়েও আলোচনায় আসতে পারেন নি তেমন। তবে এতদিন সংবাদমাধ্যমের শিরোনাম হয়ে ছিলেন তামিলনাড়ুর এই খেলোয়াড়। অলরাউন্ডার রাজাগোপাল সতীশ জানান, ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব পেয়েছিলেন তিনি।

৪০ লাখ রুপীর অফার করা হয়েছিলো সতীশকে, উদ্দেশ্য ম্যাচ পাতানো। আর এই অসৎ উদ্দেশ্য নিয়েই বানি আনন্দ নামে এক ব্যাক্তি যোগাযোগ করেন তার সাথে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে মেসেজের মাধ্যমে এই প্রস্তাব পান তিনি।

ম্যাচ পাতানোর এমন প্রস্তাব পেয়ে সাথে সাথেই না করে দেন সতীশ। আইসিসি এবং বিসিসিআইয়ের পাশাপাশি পুলিশকেও এই বিষয়ে অবগত করেন তিনি। তবে প্রকৃতপক্ষে কোন ম্যাচের জন্যে যে তিনি এমন প্রস্তাব পেয়েছিলেন, তা এখনো স্পষ্ট করে জানা যায়নি।

শাব্বির খান্ডাওয়ালা, বিসিসিআইয়ের দুর্নীতিবিরোধী ও নিরাপত্তাবিষয়ক ইউনিটের (আকসু) প্রধান, সতীশের কাছ থেকে এমন অভিযোগ পেয়ে নিশ্চিত করে বলেন, ‘সংশ্লিষ্ট খেলোয়াড় আমাদের এবং আইসিসিকে এ ব্যাপারে জানিয়েছেন। বলেছেন, কেউ একজন তাঁকে ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে এই প্রস্তাব দিয়েছেন। আমরা ব্যাপারটা দেখছি এবং আমাদের সংশ্লিষ্ট অফিসারকে জানিয়েছে পুলিশি অভিযোগ করার জন্য। এখন পুলিশই দেখবে ব্যাপারটা।’

সতীশ রাজি না হলেও, বানি আনন্দ নামের সেই ব্যক্তির প্রস্তাবে রাজি হয়েছেন আরো দুই ক্রিকেটার, এমনটাই নাকি সতীশকে জানিয়েছিলেন সেই ম্যাচ ফিক্সার।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement

আরো দেখুন ক্রিকেট