আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

ক্রিকেট

কোহলির ‘ফেক ফিল্ডিং’, ৫ রান পেলে জিততে পারতো বাংলাদেশ!

বৃষ্টি আইনে ভারতের বিপক্ষে  বাংলাদেশের ৫ রানে হারের পর আলোচনায় উঠেছে ফেক ফিল্ডিং। কারণ খেলার মাঝামাঝি লিটন কুমার দাশ ও নাজমুল হোসেন শান্তর ডাবলস নেওয়ার সময় ফেক ফিল্ডিং করেছিলেন বিরাট কোহলি। যাতে ভারতের ৫ রান পেনাল্টি হওয়ার কথা ছিলো।

কোহলির 'ফেক ফিল্ডিং', ৫ রান পেলে জিততে পারতো বাংলাদেশ!

কোহলির ‘ফেক ফিল্ডিং’, ৫ রান পেলে জিততে পারতো বাংলাদেশ! ছবিঃ সগৃহীত

বিষয়টি নিয়ে শান্ত তৎক্ষণাৎ অবগত করেন আম্পায়ারকে, কিন্তু কোনও সাড়া পাননি। আম্পায়ার জানান, তারা সেরকম কিছু দেখেননি।

ঘটনাটি ঘটে বৃষ্টি শুরু হওয়ার ঠিক আগ মূহুর্তে। সপ্তম ওভারের দ্বিতীয় বলে ব্যাট করছিলেন লিটন দাস। বোলিংয়ে ছিলেন আক্সার পাটেল। সেই সময় লিটন একটি বলটি লং অফে ঠেলে দিয়ে দুই রানের জন্য দৌড় শুরু করেন। বলটা গিয়ে পৌঁছয় আর্শদীপ সিংয়ের কাছে। তিনি তা বিরাট কোহলির মাথার ওপর দিয়ে উইকেটরক্ষকের দিকে ছুঁড়ে দেন। বল বিরাট কোহলিকে টপকে দীনেশ কার্তিকের কাছে আসে। কিন্তু বলটি যখন কার্তিকের কাছে আসছিল, সেই সময় বিরাট বলটি অন্যদিকে ছোঁড়ার অভিনয় করেন। বিরাটকে দেখে মনে হচ্ছিল, বলটি তিনি নিজে ছুঁড়ছেন।

কিন্তু সেটা আর্শদীপের হাত থেকে বল সরাসরি দীনেশ কার্তিকের কাছে আসছিল, যেখানে বিরাটের কোন স্পর্শ লাগেনি। অর্থাৎ শুধুমাত্র ব্যাটস্ম্যানকে বিভ্রান্ত করার জন্যই কোহলি এই কাজটি করছেন। যা ক্রিকেটের নিয়মে একটা গুরুতর অপরাধ।

আইসিসির ৪১.৫ নম্বর ধারাতে এর সম্পর্কে স্পষ্ট বলা আছে, খেলা চলাকালীন বিপক্ষ প্লেয়ারের করা কোনও কাজে যদি ব্যাটার বিভ্রান্ত হন, তাহলে বিপক্ষ দলের ৫ রান পেনাল্টি হিসেবে কাটা যাবে। কিন্তু গতকাল বাংলাদেশ তা পায়নি। শান্ত বারাবার আম্পায়ারের কাছে অভিযোগ করারা পরেও তা আমলে নেওয়া হয়নি।

যদিও বড় টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচে এমন অভিযোগ নতুন কিছু না। এর আগেও এমন বহু অনিয়ম সামনে এসেছে এই দুই দলের ম্যাচকে ঘিরে। কোনবার আম্পায়ারিং নিয়ে আবার কখনো আইসিসির স্বজন-প্রিতি নিয়ে। যেখানে প্রতিবারই ভিক্টিম হয়েছে টাইগাররা, নীরব সাক্ষী হয়েছে লক্ষকোটি দর্শক…

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement

আরো দেখুন ক্রিকেট