আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

বিপিএল

কুমিল্লাকে হারিয়ে রোমাঞ্চকর জয়ে ফাইনালে বরিশাল

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স এবং ফরচুন বরিশালের আজকের ম্যাচটি ছিলো শ্বাসরুদ্ধকর। শেষ মুহুর্তে অল্পের জন্যে চোখ এড়ালেন তো মনে হয় বিশাল কিছু মিস করে বসেছেন। ফাইনালে যেতে শেষ ১২ বলে কুমিল্লার প্রয়োজন ছিলো ২২ রান। ক্রিজে সেট ছিলেন দুই বিধ্বংসী ব্যাটার ফাফ ডু প্লেসী এবং সুনিল নারাইন। সবদিক বিবেচনা করে যে কেউ ভাববেন ম্যাচ কুমিল্লার হাতে।

এমন শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতিতে বল করতে এসে চার রান দিয়ে এক উইকেট নেন পেসার মেহেদি হাসান রানা। আর তাতেই মোড় ঘুরে যায় খেলার। বরিশালের সংগ্রহ করা অল্প রানেই বোলারদের অবদানে সাকিবের দল জয় পেয়ে যায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে। আর তাতে প্রথম দল হিসেবে ফাইনালে উঠেছে ফরচুন বরিশাল।

সোমবার মিরপুরের মাঠে দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয় ফরচুন বরিশাল এবং কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। প্রথম কোয়ালিফায়ারে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে বরিশালের হয়ে শুভ সূচনা করে দেন ক্রিস গেইল এবং মুনিম শাহরিয়ার। দুজনের ৫৮ রানের জুটি ভাঙ্গেন শহিদুল ইসলাম।

১৯ বলে ২২ রান করে গেইল বিদায় নিলেও ৩০ বলে ৪৪ রান করেই মাঠ ছাড়েন মুনিম। মারেন দুইটি চার এবং চারটি ছয়। তার বিদায়ের পরপরই ভেঙ্গে পড়ে বরিশালের ব্যাটিং লাইনআপ। মইন আলির স্পিন ঘূর্ণিতে মাত্র ১০ রানের ব্যবধানে সাজঘরে ফেরেন শান্ত (১৩), তৌহিদ হৃদয় (১)। রান আউট হন সাকিব আল হাসান। আর তাতে ৯৪ রানে বরিশাল হারায় ৫ উইকেট।

তারপর জিয়াউর রহমানের ১৭ এবং ব্রাভোর করা ১৭ রানের পাশাপাশি নুরুল হাসানের ১১ রানে বরিশালের সংগ্রহ হয় ২০ ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৩।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে বরিশালের বোলারদের উপর চাপ তৈরি করেন কুমিল্লার দুই ওপেনার লিটন দাস ও মাহমুদুল হাসান জয়। তাদের ব্যাটে ৬২ রানের সূচনা পায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ৩০ বলে ২০ রান করে ফেরেন জয়। লিটন দাস ৩৫ বলে ৩৮ রান করে ফেরেন। অধিনায়ক ইমরুল কায়েস ৫ রানেই ফিরে যান সাজঘরে।

পরবর্তীতে ডু প্লেসী এবং মইন আলির প্রতিরোধে ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ায় কুমিল্লা। কিন্তু ১৫ বলে ২২ রান করে মইন ফিরলে তাদের ৩৬ রানের জুটি ভাঙ্গে। শেষ দিকে মাঠে সেট হন ডু প্লেসী এবং নারাইন। কিন্তু ১৯ তম ওভারে ডু প্লেসীকে রানা ফেরালে ম্যাচ কঠিন হয়ে যায় কুমিল্লার জন্যে। শেষমেশ ৭ উইকেট হারিয়ে ১৩৩ রানে থামে কুমিল্লা।

বরিশালের হয়ে মুজিব উর রহমান, মেহেদী হাসান রানা এবং শফিকুল ইসলাম নেন ২ টি করে উইকেট।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement

আরো দেখুন বিপিএল