আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

ক্রিকেট

এডিআরএসে অসন্তুষ্টিতে সাকিব-মুজিবে বরিশালের জয়

ফরচুন বরিশালের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান রানে ফেরার বার্তাটা আগের ম্যাচেই দিয়েছিলেন। তবে খুলনার বিপক্ষে পঞ্চাশ পেরোতে পারেন নি তিনি। আগের ম্যাচে না পারলেও এরপরের ম্যাচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে তুলেছেন ঝড়। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার চট্টগ্রামের মাঠে হাঁকালেন এবারের আসরের নিজের প্রথম হাফসেঞ্চুরি।

তবুও দলীয় সংগ্রহটা বড় হয়নি বরিশালের। ২০ ওভারের ৫ বল আগেই ১৪৯ রানে অল-আউট হয়ে যায় বরিশাল। তাদের অল্প রানেই দমিয়ে রাখার মূল কারিগর বিপিএলের হ্যাট্রিক ম্যান মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী নিপুণ। ২ ওভার বল করে নিয়েছেন সাকিব সহ ৪ উইকেট।

মৃত্যুঞ্জয়ের একার তোপেই শেষ ১৯ রান তুলতে বরিশাল হারায় ৭ উইকেট। যার কারনে সাকিবের ৩১ বলে ৫০ রানের পরও বরিশাল পেরোতে পারেনি ১৫০ এর কোটা। মৃত্যুঞ্জয়ের পাশাপাশি শরিফুল নিয়েছেন ২ উইকেট।

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নামে বরিশাল। ওপেনিংয়ে নামেন ক্রিস গেইল এবং বিপিএলে অভিষিক্ত মুনিম শাহরিয়া। কিন্তু ম্যাচ শুরুর তৃতীয় বলেই ফিরে যান মুনিম। ১ চারের সঙ্গে তিনটি বিশাল ছয় হাঁকানোর পর ফেরেন গেইলও।

অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ও নাজমুল হোসেন শান্ত পরবর্তীতে যোগ করেন ৩১ রান। কিন্তু ১১ তম ওভারে শান্তর আউট নিয়ে দেখা দেয় গোলযোগ। আফিফ হোসেনের বলে ব্যাট করতে গিয়ে ব্যর্থ হয়ে বল জমা পড়ে উইকেট-রক্ষকের গ্লাভসে। আউট দেননি মাঠের আম্পায়ার, জোরালো আবেদন করে চট্টগ্রামের ফিল্ডাররা। রিভিউ নেন বোলার।

ডিআরএস প্রযুক্তি না থাকায় এডিআরএসে শুধুমাত্র আওয়াজের ভিত্তিতে আউটের সিদ্ধান্ত দেন থার্ড আম্পায়ার। এমন সিদ্ধান্তে আম্পায়ার সহ সাকিব এবং শান্তর চোখেমুখেও হতাশার চিহ্ন। বোঝা যায়, সিদ্ধান্তে খুশী নন কেউই। শান্ত দাঁড়িয়েও ছিলেন অনেকক্ষণ। পরবর্তীতে আম্পায়ের মধ্যস্ততায় মাঠ ছাড়েন তিনি।

এরপরই দায়িত্ব নেন সাকিব। নাসুম আহমেদের বলে পরপর তিনটি ছক্কা হাঁকান। তুলে নেন তার এবারের বিপিএলের প্রথম ফিফটি। ক্রিকেটের এই সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে ৪৫ ম্যাচ পর ফিফটির দেখা পান অলরাউন্ডার সাকিব। ২০১৯ সালের জানুয়ারির পর আজকেই ফিফটির দেখা পেলেন এই অলরাউন্ডার।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে আফিফ হোসাইন ৩২ বলে ৩৯, শামীম হোসাইন ৩০ বলে ২৯, এবং মেহেদী হাসান ১৩ বলে ২৬ রান করেন। কিন্তু মুজিব উর রহমান আর সাকিব আল হাসানের তোপে পড়ে বেশিদূর আগাতে পারেনা চট্টগ্রাম।

বরিশালের বোলারদের তোপে টিকতে না পেরে ১৩৫ রানেই গুটিয়ে যায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। সাকিব আল হাসানের দল জিতে নেয় ম্যাচ। বরিশালের হয়ে সাকিব আল হাসান এবং মুজিব উর রহমান নেন সর্বোচ্চ ৩ টি করে উইকেট, ব্রাভো আর মেহেদী হাসান রানা নেন ২ টি করে উইকেট।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement

আরো দেখুন ক্রিকেট