আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে পঞ্চম যুব বিশ্বকাপ জয় ভারতের

আগের ছক্কায় ম্যাচের ফলাফল এক প্রকার হাতের মুঠোয়। রানের সমতায় উচ্ছ্বসিত সবাই। জ্যামস স্যালেসের পরের বলে দিনেশ বানা লং অন দিয়ে উড়িয়ে মারা মাত্রই মাঠের দিকে ছুটতে শুরু করেন সতীর্থরা। বল যতক্ষণে বাউন্ডারি পাড় করে, ততক্ষণে মাঠের ভেতরে ভারতীয় যুবাদের অনেকেই। ইংল্যান্ডকে হারিয়ে পঞ্চমবারের মত যুব বিশ্বকাপ জয়ের আনন্দে যেনো মাতোয়ারা পুরো ভারতীয় দল।

অ‍্যান্টিগায় শনিবার ইংলিশ যুবাদের হারিয়ে পঞ্চমবারের মতো অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ নিজেদের করে নিয়েছে ভারতীয় যুবারা। ৫ ফেব্রুয়ারি ফাইনালে ইংল‍্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

অ্যান্টিগার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এবারের আসরের যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল ম্যাচে ১৫ বল বাকি থাকতেই জয় তুলে নেয় টিম ইন্ডিয়ার যুবারা।

ইনিংসের শুরুতে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ইংলিশ অধিনায়ক টম প্রেস্ট। তবে ভারতের রাজ বাওয়া এবং রবি কুমারের বোলিং তোপে সে সিদ্ধান্ত অনেকটা ফ্যাঁকাসে হয়ে যায় ফাইনালের মঞ্চে।

রাজ বাওয়া এবং রবি কুমারের বোলিংয়ে ৯১ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ইংল্যান্ডের রান গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কা ছিলো একশোর আশেপাশেই। সেখান থেকে জেমস রুর দায়িত্বশীল ইনিংসের উপর ভর করে ৪৪.৫ ওভারে ১৮৯ রানে গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড। জেমস রিউ করেন সর্বোচ্চ ৯৫ রান।

ভারতের হয়ে রাজ বাওয়া ৩১ রানে ৫ উইকেট এবং, রবি কুমার ৩৪ রানে ৪ উইকেট তুলে নেন নিজেদের খাতায়।

জবাবে ইংল্যান্ডের দেওয়া স্বল্প রান তাড়া করতে নেমে শুরুতে বিপাকে পড়ে যায় ইয়াশ ধুলের দল। দ্বিতীয় বলেই উইকেট তুলে ভারতীয় দলকে বিপদে ফেলে দেন ইংলিশ পেসার জশুয়া বয়ডেন। তবে হারনূর সিং এবং শাইখ রাশিদের ধীরস্থির ব্যাটিংয়ে ১৭.৩ ওভারে দলের খাতায় ৪৯ রান যোগ হওয়ায় সে ধাক্কা কিছুটা সামলে উঠে ভারত।

৪৬ বলে ২১ রানের ধৈর্যশীল ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন হারনূর সিং। পরবর্তীতে ৫০ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে জেমস সালেসের বলে ফেরেন শাইখ রাশিদ। পরের ওভারে ১৭ রান করে অধিনায়ক ইয়াশ ধুল সাজঘরে ফিরলে দলের হাল ধরেন বোলিংয়ে ইংলিশদের ধুইয়ে দেওয়া রাজ বাওয়া এবং নিশান্ত সিন্ধু।দুজনের জুটিতে ভারতের দলীয় রানে যুক্ত হয় ৬৭ রান।

৩৫ রান করে রাজ বাওয়া আউট হলে বাকি কাজটুকু সারেন নিশান্ত সিন্ধু এবং উইকেটকিপার দীনেশ বানা। নিশান্ত সিন্ধু পরবর্তীতে করেন দলীয় সর্বোচ্চ ৫০ রান।

ইংল্যান্ডের পক্ষে বয়ডেন, জেমস সালেস এবং থমাস অ্যাস্পিনওয়াল পান দুইটি করে উইকেট।

অবশ্য ভারতের জয়ে রাজ বাওয়ারের অলরাউন্ডার নৈপুণ্যে অবদান সবচেয়ে বেশি। ৩১ রানে ৫ উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি ৩৫ রানের ঝলমলে ইনিংস ভারতকে জয় তো এনে দেয়ই, সাথে ফাইনালের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারটাও যুক্ত হয় তার নামের পাশে।

ভারত পঞ্চমবারের মতো ঘরে তুলে নেয় অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ শিরোপা। আর হারের গ্লানি নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় ইংলিশ যুবাদের।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল‍্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দল: ৪৪.৫ ওভারে ১৮৯ (টমাস ২৭, বেথেল ২, প্রেস্ট ০, রু ৯৫, লাক্সটন ৪, বেল ০, রেহান ১০, হর্টন ১০, স‍্যালেস ৩৪*, এস্পিনওয়াল ০, বয়ডেন ১;

হাঙ্গারগেকার ৭-১-৩৬-০, রবি ৯-১-৩৪-৪, বাওয়া ৯.৫-১-৩১-৫, সিন্ধু ৬-১-১৯-০, অস্তওয়াল ৬-০-৩১-০, তাম্বে ৫-০-২৯-১, রঘুভানশি ২-০-৮-০)

ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দল: ৪৭.৪ ওভারে ১৯৫/৬ (রঘুভানশি ০, হারনুর ২১, রশিদ ৫০, ধুল ১৭, সিন্ধু ৫০, বাওয়া ৩৫, তাম্বে ১, বানা ১৩*;

বয়ডেন ৭-১-২৪-২, স‍্যালেস ৭.৪-০-৫১-২, প্রেস্ট ১০-১-২৯-০, রেহান ১০-২-৩২-০, এস্পিনওয়াল ৯-০-৪২-২, বেথেল ৪-০-১৭-০ )

ফল: ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দল ৪ উইকেটে জয়ী

ম‍্যান অব দা ম‍্যাচ: রাজ বাওয়া

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement

আরো দেখুন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট