আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

ক্রিকেট

আইসিসি বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে সব থেকে বেশি খেলোয়াড় বাংলাদেশের

বাংলাদেশ দলে অভিষেকের পর থেকেই জ্যোতি ছড়াচ্ছেন বাংলাদেশের মুস্তাফিজুর রহমান। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশ আশানুরূপ ফল করতে পারে নি। বাংলাদেশের এই ভরাডুবির মাঝেও ক্রিকেটের এই সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে নিজের বৈচিত্র্যময় বোলিংয়ে মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের বোলার মুস্তাফিজুর রহমান।

তারই ধারাবাহিকতায় গত রবিবার মিলল স্বীকৃতি। আইসিসি টি-টোয়েন্টি বর্ষসেরা দলে বাংলাদেশের একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে জায়গা করে নেন তিনি। যেখানে জায়গা করতে পারেন নি পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের কোন খেলোয়াড়। পাকিস্তানের হয়ে গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আলো ছড়ানো বাবর আজম হয়েছেন সে দলের অধিনায়ক।

কিন্তু তার একদিন পরই বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্যে সুখবর বয়ে নিয়ে এলো আইসিসি। বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে জায়গা করে নিয়েছেন মুস্তাফিজ সহ বাংলাদেশি আরো দুই খেলোয়াড়। বাংলাদেশ ক্রিকেটের পঞ্চপান্ডবের দুজন, সাকিব আল হাসান আর মুশফিকুর রহিম।

এমন সুসংবাদ নিঃসন্দেহে বাংলাদেশের ক্রিকেট অঙ্গনে বয়ে নিয়ে আসবে ইতিবাচক প্রভাব। আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশে সব থেকে বেশি খেলোয়াড় জায়গা পেয়েছেন বাংলাদেশ থেকে।

বিষ্ময়কর হলেও সত্যি এবারের একাদশে জায়গা পাননি শক্তিশালী ভারত এবং নিউজিল্যান্ডের একজন ক্রিকেটারও। পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কার দুজন করে ক্রিকেটার জায়গা পেয়েছেন বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে। গেলো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের হয়ে অপ্রতিরোধ্য অবদান রাখা এবং টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে এক বছরে সর্বোচ্চ সংখ্যক ব্যক্তিগত রানের রেকর্ড করা মোহাম্মদ রিজওয়ানও নেই এই একাদশে। পাকিস্তানের অন্য এক শক্তি শাহিন শাহ আফ্রিদিরও নাম আসেনি একাদশে।

তবে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা এই একাদশের নেতৃত্ব পেয়েছেন পাকিস্তানের বাবর আজম। তার সাথে দলে জায়গা পেয়েছেন আরেক সতীর্থ ফখর জামান।

আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশে ওপেনার হিসেবে রাখা হয়েছে আয়ারল্যান্ডের অধিনায়ক পল স্টার্লিং ও দক্ষিন আফ্রিকার মারকুটে ব্যাটার জানেমান মালানকে। বাংলাদেশের সাকিব এবং মুশফিক রয়েছেন মিডল অর্ডারে। আয়ারল্যান্ডের আরেক তারকা সিমি সিং কেও দেখা যায় একাদশে। শ্রীলংকা থেকে ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা ও দুশমন্ত চামিরা বর্ষসেরা একাদশে জায়গা করে নেন।

আইসিসি বর্ষসেরা ওয়ানডে দল (পুরুষ) 

বাবর আজম (অধিনায়ক, পাকিস্তান), ফখর জামান (পাকিস্তান), জানেমান মালান (দক্ষিণ আফ্রিকা), মোস্তাফিজুর রহমান (বাংলাদেশ), সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ) ও মুশফিকুর রহিম (বাংলাদেশ), ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা (শ্রীলংকা), দুশমন্ত চামিরা (শ্রীলংকা), পল স্টার্লিং (আয়ারল্যান্ড), সিমি সিং (আয়ারল্যান্ড), রসি ভ্যান ডার ডুসেন (দক্ষিণ আফ্রিকা)।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement

আরো দেখুন ক্রিকেট