আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

ক্রিকেট

অলরাউন্ডারে ভারসাম্য দল খুলনা

খুলনা টাইগার্সের দল এবার অনেক ভাবনাচিন্তার পরই হয়তো ভারসাম্যর দিকে নজর দিয়েছেন। দলটির ম্যানেজার নাফিস ইকবালের প্লেয়ার সিলেকশনে এমনটাই দেখা যায় এবার। পুরো দলে অলরাউন্ডারের ছড়াছড়ি। যেনো কোন অংশে পিছিয়ে না যায় খুলনা।

মেহেদী হাসান, থিসারা পেরেরা, ফরহাদ রেজা, সিকান্দার রাজা ও সৌম্য সরকার, এদের যে কাউকেই প্রয়োজনে ব্যাটিং এবং বোলিং দুটোতেই একই সাথে কাজে লাগানো যায়। নিজেদের অবস্থান ইতিমধ্যেই তারা তাদের দক্ষতায় পরিষ্কার করেছেন। অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমও কম যান না কোন অংশে। সদ্য ঘোষিত হওয়া আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশে জায়গা করে নেন তিনি।

পাঁচজন মূল বোলার ছাড়াও খুলনায় রয়েছে আরো বিকল্প বোলার। টি-টোয়েন্টির এই ফরম্যাটে এমন ভারসাম্য পাওয়া কষ্টকর। এতে করে তাদের ব্যাটিং লাইনআপও হবে আরো গভীর। খুলনা টাইগার্সের কোচ ল্যান্স ক্লুজনার বলেন, ‘অলরাউন্ডারদের দিকে আমাদের মনোযোগ থাকবে। আমরা দীর্ঘ ব্যাটিং লাইনআপ সাজাতে চাই। তাঁদের কাছ থেকে কয়েক ওভার বোলিংও চাইব।’

আগামী ২১ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসর। ছয় ফ্র্যাঞ্চাইজি খেলবেন একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে। এবারের আসরে খুলনা দলকে ভালো করতে হলে স্থানীয় খেলোয়াড়দের জ্বলে উঠতে হবে। সে বিশ্বাসেই ছন্দে থাকা ক্রিকেটারদের উপর ভরসা করছেন দলটির ম্যানেজার নাফিস।

স্থানীয় এসব ক্রিকেটারদের প্রতি আশাবাদী হয়ে তিনি বলেন, ‘স্থানীয় ক্রিকেটারদের বেশির ভাগই সামর্থ্যের দিক থেকে ১৯-২০ পার্থক্য। এ ক্ষেত্রে কে ফর্মে আছেন, সেটা গুরুত্বপূর্ণ। আমরা স্থানীয় খেলোয়াড়দের ক্ষেত্রে ফর্মটা মাথায় রেখেছি। সৌম্য রান করেছে। রনিও ভালো করেছে। রাব্বি-মুশফিকরা টেস্ট দলের সঙ্গেই ছিল। আর মেহেদী তো দুই বছর ধরে দারুণ খেলছে।’

তবে এতকিছুর পরও খুলনা টাইগার্সের সবথেকে বড় শক্তি হবেন মুশফিকুর রহিমই। বিপিএলের আসরে ইতিমধ্যেই তিনি দেখিয়েছেন চমক। ব্যাটিংয়ের জন্যে জটিল এই টুর্নামেন্টেও ৮১ ইনিংসে ৩৭ গড় ও ১৩৪ স্ট্রাইক রেটে ২ হাজার ২৭৪ রান করে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তিনি। তাই অধিনায়ককে নিয়েও আশার বানী শোনা যায় নাফিসের মুখ থেকে, ‘মুশফিক বাংলাদেশের সেরা মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের একজন। খেলাটা সে ভালো বোঝে। অধিনায়ক হিসেবেও দারুণ, সবার জন্য উদাহরণ তৈরি করে চলে। তাকে দলে পাওয়া অবশ্যই ভাগ্যের ব্যাপার।’

স্থানীয় খেলোয়াড়দের পাশাপাশি বিদেশী খেলোয়াড়রা তো রয়েছেনই। সেক্ষেত্রে ভাগ্য ভালোই বলা চলে খুলনার। ড্রাফটের বাইরে থেকে ভানুকা রাজাপক্ষেকে দলে নেওয়ার কথা ছিলো খুলনার। কিন্তু শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট বোর্ড থেকে অনাপত্তিপত্র না পাওয়ায় খেলতে পারবেন না তিনি। তার জায়গায় ক্যারিবীয় ওপেনার আন্দ্রে ফ্লেচার খেলবেন খুলনায়। থিসারা পেরেরা এবং আফগানিস্তানের পেসার নাভিন উল হকও থাকছেন দলে। ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে নাভিন উল হক পিএসএলে না খেলে চলে এসেছেন বিপিএলে।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement

আরো দেখুন ক্রিকেট